সোনাপাতা পাউডার (শতভাগ প্রাকৃতিক ও স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে প্রক্রিয়াজাতকৃত ও প্রস্তুতকৃত) ১২৫ গ্রাম

৳ 110.00

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) মাঝে মধ্যে সংঘটিত কোষ্ট-কাঠিন্য দূর করার জন্য স্বল্প সময়ের চিকিৎসা হিসেবে সোনাপাতা ব্যবহারের অনুমতি দেয়।
এছাড়া পায়ু পথের সমস্যা দূর করতে, অর্শের সমস্যায়, অপারেশনের পূর্বে ও পরে পেট পরিষ্কার রাখতে সোনাপাতা ব্যবহার করা হয়।
সোনাপাতায় বিদ্যমান ইমোডিন বিভিন্ন পরিমাণে চিকিৎসায় ব্যবহা করা হয়। প্রদাহ নাশ করতে ১৫ মি.গ্রা./ কেজি ব্যবহার করা হয়। এ ছাড়া এন্টি সেপটিক ও এন্টি আলসার হিসেবেও এটা কাজ করে।
এন্হ্রাকুইনোন সাইটোটক্সিক এবং কোষ পুনরুদ্ধার-এ রিজেনারেশনে উদ্দীপনা জাগায়, ডিটক্সিফিকেশন এবং পরিষ্কারক হিসেবেও কাজ করে।
সোনাপাতার নানাবিধ ব্যবহারের মথ্যে রয়েছে-ক্ষুধা কমায়, যকৃত বিকৃতি, প্লীহা বিকৃতি, বদহজম, ম্যালেরিয়া তকের বিভিন্ন সমর্সা জন্ডিস এবং এনিমিয়। কোষ্ঠকাঠিন্য , রেচক , ওজন কমাতে সাহায্য করে ।

রাসুল সাঃ বলেছেন – অবশ্যই তোমাদের সোনা /সিনা (Sanna) ও শুলফা ব্যবহার করা উচিত । এ দুটোতে সাম ছাড়া সকল রোগের নিরাময় রয়েছে। জিজ্ঞেস করা হলো, ইয়া রাসুলাল্লাহ ! সাম কি? তিনি বললেন “মৃত্যু” । ইবনে মাজাহ, চিকিৎসা অধ্যায়, হাদিস নাম্বারঃ ৩৪৫৭ ।
রাসুল সাঃ বলেন, এমন কোনো প্রতিষেধক যদি থাকতো, যা মৃত্যুকে প্রতিরোধ করতে পারতো, তাহলে তা হতো সিনা/ সোনা পাতা  ( আত-তিরমিযী , হাদিস নং ২০৩১  )

Category:

ঔষধী ব্যবহারঃ

সোনা পাতায় বিদ্যমান বিভিন্ন রাসায়নিক উপাদানগুলির কারণে এটা প্রধানত জোলাপ বা রেচক হিসেবে বেশী ব্যবহৃত হয়। কোষ্ট-কাঠিন্য দূর করতে চমৎকার কাজ করে। সোনা পাতায় বিদ্যমান এনথ্রানয়েড রেচক হিসেবে উদ্দীপনা যোগায় এর কারণ হল সেনোসাইড এবং রেইন এনথ্রোন হজম প্রক্রিয়াকে প্রক্রিয়াকে সক্রিয় করে। রেচক (Laxative effect) বা শীতলকারক হওয়ার ফলে বৃহদন্তে পানি এবং ইলেক্ট্রোলাইট শোষণ বাধাপ্রাপ্ত হয় যা ইনটেস্টাইন্যাল উপাদান গুলোর ভলিউম এবং চাপ বৃদ্ধি করে। এতে কোলনের সঞ্চালন উদ্দীপিত হয়। ফলে খুব অল্প সময়ে এবং খুব সহজেই মল দেহ থেকে বাইরে নিষ্কাষিত হয়।

উপকারিতাসমূহঃ
১। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে জাদুর মতো কাজ করে।
২। হজম প্রক্রিয়া সক্রিয় হয়। এতে থাকা এনথ্রানেড রেচক হিসেবে কাজ করে।
৩। পায়ুপথ ও অর্শের সমস্যায় কার্যকরি।
৪। ক্ষুধা কমায়, যকৃত ও প্লীহা বিকৃতি, জন্ডিস ও ম্যালেরিয়া প্রতিরোধে উপকারিম

খাওয়ার নিয়মঃ

রাতে আধা চা চামুচ পাতা চুর্ন আধা গ্লাস গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। সকালে ছেকে নিয়ে অল্প পরিমাণ গরম পানি মিশিয়ে চায়ের মত পান করতে হবে। অথবা চিকিৎসকের পরামর্শে খেতে হবে ।
.
সতর্কতাঃ

আমাশয়, পাতলা পায়খানার রোগীদের, বৃদ্ধদের, দুর্বলদের, ও অন্ত্রের কোন রোগ থাকলে, যেমন-অন্ত্রের প্রদাহ, আলসার, এপেনহিসাইটিস ইত্যাদি এসব ক্ষেত্রে সোনাপাতা ব্যবহার করা যাবে না।
এছাড়া গর্ভবতী বা স্তন্যদানকারী মায়েদের ক্ষেত্রে এবং ৫ বছরের নিচের বাচ্চদের এই হার্বস ব্যবহার করা উচিত নয়।
খাবার ৪-৫ ঘণ্টার মধ্যে বাথরুমের আশেপাশে থাকতে হবে।
সপ্তাহে দুইদিন বা তিনিদিনের  বেশী সেবন করা উচিৎ না।

ন্যাচারাল পাওয়ার সোনাপাতার বিশেষত্বঃ

উৎকৃষ্ট সোনা পাতা সংগ্রহ করে বাছাই এবং স্বাস্থ্যসম্মত ও বৈজ্ঞানিক উপায়ে প্রক্রিয়াজাত করে ন্যাচারাল পাওয়ার সোনাপাতা গুড়া প্রস্তুত করা হয়। ন্যাচারাল পাওয়ার সোনাপাতা শতভাগ প্রাকৃতিক। কেমিক্যাল, ধুলাবালি ও ভেজাল কোন উপাদানের মিশ্রণ নেই।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “সোনাপাতা পাউডার (শতভাগ প্রাকৃতিক ও স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে প্রক্রিয়াজাতকৃত ও প্রস্তুতকৃত) ১২৫ গ্রাম”

Your email address will not be published. Required fields are marked *