ত্রিফলা (শতভাগ প্রাকৃতিক ও স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে প্রক্রিয়াজাতকৃত ও প্রস্তুতকৃত) ১২৫ গ্রাম

৳ 150.00

ত্রিফলাকে বলা হয় “মাদার অফ অল হার্বস”। আমলকী, হরিতকি ও বহেরার সমানুপাতিক মিশ্রণে তৈরি ত্রিফলা গুড়া। এতে কোন চিনি যোগ না করায় এর স্বাদ হালকা ঝাঁজালো হবে। হাই কোলেস্টেরল লেভেল আর আরথাইটিসের ঝুঁকি কমায়। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। হজম প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করে ও বদহজম জনিত সমস্যা দূর করে। শরীরে ফ্যাট সেল জমতে না দিয়ে ওজন নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।  অন্ত্রের সব বর্জ্য দূর করে খাবার থেকে পুষ্টি গ্রহণ করার ক্ষমতা বাড়ায়।

Category:

উপকারিতাঃ
ভিটামিন সি এর রাজা আমলকীতে রয়েছে পেয়ারার চেয়ে ৩ গুণ, কাগজি লেবুর চেয়ে ১০ গুণ, কমলালেবুর চেয়ে ১৫-২০ গুণ, আমের চেয়ে ২৪ গুণ, কলার চেয়ে ৬০ গুণ এবং আপেলের চেয়ে ১২০ গুণ বেশি ভিটামিন সি। এছাড়াও আমিষ, চর্বি, ক্যালসিয়াম, লৌহ, খনিজ, শর্করা, মিনারেলস কি নেই আমলকিতে? এক হরিতকীতে রয়েছে ট্যানিন,অ্যামিনো অ্যাসিড। বহেড়ার মধ্যে অনেক যৌগ ও পুষ্টি উপাদান রয়েছে যা মানব দেহের জন্য খুবই কার্যকর। যেমন Sitsterol, Galic Acid, Galloyl Glucose, Fatty Acid, Protien, Oxalic Acid,Tannin, Palmitic Acid,Oleic Acid, Linoeic Acid, Galactose, Ethyl Gallate. এছাড়াও রয়েছে ভিটামিন, মিনারেলসহ অসংখ্য উপকারী উপাদান। একসাথে ব্যবহারে এদের গুণাগুণ হাজার গুণ বেড়ে যায় এই ধারণা থেকেই ত্রিফলার উৎপত্তি।

হাজারো পুষ্টি উপাদানে ঠাসা ত্রিফলার কিছু উপকারিতা সংক্ষেপে জেনে নেই
০১. ত্রিফলায় থাকা গ্যালিক অ্যাসিড ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে।
০২. ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে। ইমিউন সিস্টেম বুস্ট করে।
০৩. গ্যাস্ট্রিক এর সমাধানে খুবই কার্যকরী।
০৪. যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি করে ইমাম গাজ্জালী (রহ.) তার রচিত ‘এহইয়াউল উলুম’ গ্রন্থে মানুষের যৌন শক্তি বৃদ্ধির যে চারটি উপাদানের কথা উল্লেখ করেন তার মধ্যে ত্রিফলা অন্যতম।
০৫. প্রেশার নিয়ন্ত্রণ করে
০৬. কোষ্ঠকাঠিন্য ও পাইলসের সমস্যা সমাধানে কার্যকর ভূমিকা রাখে।
০৭. কিডনী ও লিভার ভালো রাখে এবং রক্তসংবহন তন্ত্রের জন্য উপকারী।
০৮. হৃদরোগের ঝুঁকি হ্রাস করে।
০৯. ওজন কমাতে সাহায্য করে।
১০. খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়।
১১. দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখে।
১২. চুল পড়া বন্ধ করে। নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে।
১৩. শরীরকে ডিটক্সিফাই করতে ত্রিফলার জুড়ি নেই।

খাওয়ার নিয়মঃ

প্রতিদিন সকালে ৬ গ্রাম ও রাতে ৬ গ্রাম সেবন করুন । খালিপেটে বা খাবার পর উভয় অবস্থায় খাওয়া যায় । তবে কোনো সমস্যা না হলে ( যেমন পেটে গ্যাস, পায়খানা নরম হয়ে যাওয়া ) খালি পেটে খাওয়াই উত্তম ।

খাওয়ার সাধারণ নিয়মঃ

২ চা চামুচ নিয়ে রাতে ১ গ্লাশ পানিতে ভিজিয়ে রাখবেন, সকালে শুধু পানি টুকু পান করবেন । এভাবে ২ চা চামুচ নিয়ে সকালে ১ গ্লাশ পানিতে ভিজিয়ে রাখবেন, রাতে ঘুমের পূর্বে শুধু পানি টুকু পান করবেন ।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “ত্রিফলা (শতভাগ প্রাকৃতিক ও স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে প্রক্রিয়াজাতকৃত ও প্রস্তুতকৃত) ১২৫ গ্রাম”

Your email address will not be published. Required fields are marked *